Fastest Search Bar - Type and see the magic! [wpdreams_ajaxsearchlite]
[hfe_template id='8638']

ডেসটিনি ডিজরাপ্টেড – তামিম আনসারী – বই রিভিউ ২০২০ | Destiny Disrupted Book Review 2020

ডেসটিনি ডিজরাপ্টেড – তামিম আনসারী – বই রিভিউ | Destiny Disrupted Book Review

ডেসটিনি ডিজরাপ্টেড

ভাগ্যের উপর কার বিশ্বাস নেই? চরম অবিশ্বাসীও এক সময় হতাশ হয়ে বলে – সব ভাগ্যের দোষ। তবে আমাদের আজকের আলোচনা এমন কোনো সাধারণ মানুষের ভাগ্য নিয়ে নয়, বরং পুরো একটি জাতির ভাগ্য নিয়ে। জাতির নাম মুসলিম জাতি।

নিরপেক্ষতা

ডেসটিনি ডিজরাপ্টেড বইটির যে দিকটি আপনাকে মুগ্ধ করতে বাধ্য তা হলো এর নিরপেক্ষতা, একজন মুসলিম হয়েও তামিম আনসারি সাহেব এই ক্ষেত্রে কোনো সমালোচকের কিছু বলার উপায় রাখেননি। তিনি শুধু সুখপাঠ্য করে যেন পশ্চিমাদের কথাই বলে গিয়েছেন, যদিও আদতে ইসলামের ইতিহাসকে অন্যরা যে বিকৃতির দিকে নিয়ে গিয়েছেন, লেখক চেষ্টা করেছেন তা থেকে কিছুটা হলেও ইসলামকে রক্ষা করতে। চলুন ধারাবাহিক আলোচনায় যাওয়া যাক।

অধ্যায় সমূহ

এই বইটি বিভক্ত মোট ১৬টি পর্যায়ে। রাসূল সা. এর জন্মের আগে থেকে শুরু করে ১৯৬৬ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত – এই সময়কালকে ইসলামের ইতিহাসের দিক থেকে বেঁধে ফেলা হয়েছে। উঠে এসেছে এই সময়কালের মধ্যে মুসলিম বিশ্বে কি কি ঘটেছিল যা মুসলিম বিশ্বের ভিত নাড়িয়ে দেয়।

খিলাফত

৪ খলিফার সময়কাল এই বইয়ে বর্ণিত হয়েছে বিতর্কিত জিনিসগুলোকে নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি না করে। যেমন লেখক উসমান রা. এর হত্যা, উঠের যুদ্ধ, ইত্যাদি ঘটনা বর্ণনা করার সময় আশ্রয় নিয়েছেন নিস্পৃহতার। এটাই স্বাভাবিক, যখন উম্মাহর এক বড় অংশের মাঝেই এই ন্যাক্কারজনক বিষয়গুলো নিয়ে বিভেদ রয়েছে।

উমাইয়া যুগ

উমাইয়াদের শাসন শুরু হয় হযরত মুয়াবিয়ার (রা.) মাধ্যমে। তবে এরপর তাঁর সন্তান এজিদ এমন এক নৃশংস কাজ করে, যার ক্ষত মুসলিমরা আজো ভুলেনি। নবীজির সা. দৌহিত্র হোসাইন রা. কে হত্যাকারী এজিদকে নিয়েও রয়েছে মতভেদ। এই শাসনামলের ব্যতিক্রম ৫ম খলিফা উমর বিন আবদুল আজিজ, লেখক তা উল্লেখ করতে ভুলেননি।

আব্বাসি যুগ

আব্বাসিরা ছিল রাসূলের চাচা হযরত আব্বাস রা. এর বংশধর। তাঁরা ধর্মীয় দিক থেকে যেমন হউক না কেন, শিক্ষা-সংস্কৃতির উন্নয়নে বাগদাদের খলিফাদের জুড়ি মেলা ভার। একদিকে শিক্ষা, অন্যদিকে বিশাল বিশাল স্থাপত্য, এই দুই জিনিস বাঁচিয়ে রেখেছে আব্বাসীয়দের। তবে পাশাপাশি তাঁদের মধ্যে আরো ছিলেন এক উজ্জ্বল নক্ষত্র – হারুন অর রশীদ।

এরপর আরো কিছুদূর এগিয়ে লেখক সুফি, সাধক, জ্ঞানীদের সময়ের কথা বলেছেন, এরপরের নৈরাজ্যের কথা বলেছেন। তবে এই বইয়ের আকর্ষণীয় দিক এই যে – ইতিহাস হলেও লেখার ধরন মোটেও বিরক্তি উৎপাদন করে না, বরং একবার বসলে আর শেষ না করে উঠা সম্ভব না।

ইউরোপ

দুঃখের বিষয়, যখন মুসলিমরা পড়ে ছিল তাঁদের মধ্যকার বিভেদ নিয়ে, তখন ইউরোপে লেগেছে শিল্পবিপ্লব, সংস্কারকদের ছোঁয়া। এই নবজাগরণের ফলেই মুসলিমদের হারাতে হয় স্পেন, আফ্রিকা কিংবা অন্যান্য আরো শত শত ন্যায্য ভূমি।

উপসংহার

যদি কোনো বই থেকে থাকে যা ইসলামের ইতিহাসকে পরিপূর্ণভাবে তুলে ধরতে সক্ষম, তবে তা এই ডেসটিনি ডিজরাপ্টেড ছাড়া আর কিছুই নয়। পড়ে ফেলুন এই বইটি যত শীঘ্রই সম্ভব।

বেলা ফুরাবার আগেই যেন এই উম্মাহ তার হারানো ঐতিহ্য, গৌরব ফিরে পায়, সে আশাবাদ ব্যক্ত করেই শেষ করছি আজকের বই রিভিউ।

বই রিভিউটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন, আমাদের সাইটে আরো বেশি বেশি ঘুরে যাবেন – এবং আপনার পছন্দের কোনো বইয়ের রিভিউ লাগলে বলবেন।

বিঃদ্রঃ আমাদের ওয়েবসাইটে এবং পেইজে নিজের পড়া কোনো অসাধারণ বইয়ের রিভিউ প্রকাশ করতে চাইলে এখানে যোগাযোগ করুন, বেলা ফুরাবার আগেই!


ডেসটিনি ডিজরাপ্টেড Download pdf


যোগাযোগ করুন রিভিউ রিকোয়েস্ট/ রিভিউ পাঠানোর জন্যে!

You May Also Like

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।